বৃহস্পতিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০

এক দিন আগেই অর্ধশত গ্রামে ঈদ

প্রতিনিধি, আনোয়ারা , চট্টগ্রাম

প্রকাশিত: ৩১ জুলাই ২০২০ শুক্রবার, ১০:০৯ এএম

এক দিন আগেই অর্ধশত গ্রামে ঈদ

বাংলাদেশে শনিবার পালিত হবে পবিত্র ঈদ উল আযহা। তার এক দিন আগেই শুক্রবার দক্ষিণ চট্টগ্রামের অর্ধ শতাধিক গ্রামে পালিত হলো ঈদ। সকালে অনুষ্ঠিত হয় ঈদের জামাত, তারপর যথারীতি পশু কোরবানি।

সাতকানিয়ার মির্জাখীল দরবার শরীফের অনুসারীরা প্রায় দুইশত বছর ধরে এই রীতিতে ঈদ পালন করে আসছেন।  এই দরবারের অনুসারীরা হানাফি মাজহাবের মতে বিশ্বের যে কোন দেশে চাঁদ দেখার ওপর নির্ভর করে  একই দিনে বিশ্বজুড়ে ঈদ পালনের রেওয়াজে বিশ্বাস করেন।

সে অনুযায়ী শুক্রবার আনোয়ারা উপজেলার দুইটি গ্রামসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামের অর্ধশতাধিক গ্রামে শুক্রবার পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন হয়েছে। দরবার শরীফ সূত্র জানায়, সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কারনে স্বাস্থ্যবিধি মেনে শুক্রবার সকালে আনোয়ারা উপজেলার বারখাইন ইউনিয়নের তৈলারদ্বীপ ও বরুমচড়ায় তিনটি ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে সকালে মির্জাখীল দরবার শরীফ মাঠে ঈদের প্রধান জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়।

আনোয়ারা ও সাতকানিয়ার পাশাপাশি চন্দনাইশের কাঞ্চননগর, দক্ষিণ কাঞ্চননগর, সৈয়দাবাদ, খুনিয়ার পাড়া, হাশিমপুর, কেশুয়া, সাতবাড়িয়া, মোহাম্মদপুর, হারালা, বাইনজুড়ি, বরকল, বরমা, চৈধুরীপাড়া, কষাইপাড়া, ফকিরপাড়া, পটিয়ার মল্লাপাড়া, হাইদগাঁও, শ্রীমাই, কাগজিপাড়া, বিনানীহারা, শান্তিরহাট, কালারপুল, শিকলবাহা, বাশঁখালীর জলদী, কালীপুর, গুনাগরী, ছনুয়া, সাধনপুর, আনোয়ারার তৈলারদ্বীপ, বরুমচড়া, বোয়ালখালির চরনদ্বীপ, খরনদ্বীপ, লোহাগাড়ার আমিরাবাদ, চুনতি, বরহাতিয়া, পুটিবিলা, উত্তর সুখছড়ি, আদুনগর, সাতকানিয়ার বাজালিয়া, কাঞ্চনা, গাঠিয়াডাঙ্গাসহ অর্ধশতাধিক গ্রামে ঈদুল আজহার পৃথক পৃথক জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

মির্জাখীল দরবার শরীফের মূখপাত্র মো. মছউদুর রহমান বলেন, করোনার কারণে এবার দরবার শরীফে বড় ঈদ জামাতের আয়োজন হয়নি। নিজ নিজ এলাকায় ছোট পরিসরে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।