সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০

আনোয়ারায় করোনা পরীক্ষার পরদিনই মারা গেলেন ব্যাংক কর্মকর্তা

প্রতিনিধি, আনোয়ারা , চট্টগ্রাম

প্রকাশিত: ০৩ জুন ২০২০ বুধবার, ০৯:০২ এএম

আনোয়ারায় করোনা পরীক্ষার পরদিনই মারা গেলেন ব্যাংক কর্মকর্তা

চট্টগ্রামের আনোয়ারায় করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেলেন ব্যাংক কর্মকর্তা আবু বক্কর (৪৫)। তিনি নগরীর আগ্রাবাদের একটি ইসলামী ব্যাংকের কর্মকর্তা ছিলেন। মঙ্গলবার (২জুন) সকালে তিনি মারা যান।

তাঁর বাড়ী আনোয়ারা উপজেলার চাতরী ইউনিয়নের উত্তর চাতরী গ্রামে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, দুদিন ধরে জ্বর থাকায় সোমবার আনোয়ারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নমুনা পরীক্ষা করান আবু বক্কর। মঙ্গলবার সকালে তিনি মারা যান। তিনি একটি বেসরকারি একটি ইসলামী ব্যাংকের আগ্রাবাদ শাখায় কর্মরত ছিলেন।

উপজেলা প্রশাসন জানায়, আনোয়ারা উপজেলায় এ পর্যন্ত তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার ৮ জন নতুন আক্রান্তসহ ১৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

আনোয়ারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শেখ জুবায়ের আহমেদ বলেন, করোনা পরীক্ষার একদিন পরেই ব্যাংক কর্মকর্তা মারা যাওয়ায় আমরা করোনা রোগীর মতোই তাঁর দাফনকাজ সম্পন্ন করছি।

এদিকে মঙ্গলবার (২জুন) আনোয়ারায় একদিনেই ৮ জন করোনা রোগী সনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে পুলিশ সদস্য, মাদ্রাসার অধ্যক্ষও রয়েছেন। এ নিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা দাড়াল ১৯জন। 

আনোয়ারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে গত বুধবার (২৭ মে) পাঠানো ১৫ জনের নমুনার মধ্যে ৯জনের পজেটিভ আসে। এর মধ্যে ৭ জন আনোয়ারার, একজন আনোয়ারায় কর্মরত পুলিশ সদস্য ও অন্য একজন কর্ণফুলী উপজেলার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।  

করোনা আক্রান্ত পুলিশ সদস্য রাঙ্গাদিয়া পুলিশ ফাঁড়ির উপ-সহকারি পুলিশ পরির্দশক (এএসআই) হিসেবে কর্মরত। তিনি দক্ষিণ বন্দর কান্তির হাট এলাকার ভাড়া বাসায় আইসোলেশনে রয়েছেন।

আনোয়ারা থানার অফিসার ইনচার্জ দুলাল মাহমুদ বলেন, করোনা নমুনা সংগ্রহ করার পর থেকে ওই পুলিশ সদস্য স্ত্রী-সন্তান থেকে আলাদা হয়ে একটি ভাড়া বাসায় হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছে। রিপোর্টে পজিটিভ আসলে মঙ্গলবার তার স্ত্রী ও সন্তানের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। তবে সে সুস্থ রয়েছে বলে আমাদের জানায়। তিনি আরো বলেন, থানা পুলিশ সার্বক্ষণিক তাঁর খোঁজ খবর নিচ্ছেন। নমুনা সংগ্রহের পর থেকে সে আলাদা বাসায় থাকায় থানা বা বাসা লকডাউন করা হচ্ছে না।

আনোয়ারা উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু জাহিদ মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন জানান, বর্তমানে আনোয়ারা উপজেলায় ১৯ জনের করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছে। সর্বশেষ একজন পুলিশ সদস্য ও বারশতের বখতিয়াপাড়া এলাকার একটি মাদ্রাসার এক শিক্ষকসহ ৯ জনের পজিটিভ আসে। তবে তাদের মধ্যে একজন কর্ণফুলী উপজেলার দক্ষিণ শাহমীরপুর এলাকার রয়েছে। শিক্ষকের শারীরিক অবস্থা ভালো হওয়ায় তিনি শহরে নিজ বাসায় হোম কোয়ারেন্টিনে রয়েছে।