সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০

চট্টগ্রামে নতুন সনাক্ত ২৭৯

প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

প্রকাশিত: ৩১ মে ২০২০ রবিবার, ০৮:৫৭ এএম

চট্টগ্রামে নতুন সনাক্ত ২৭৯

চট্টগ্রামে  ১২১৯ জনের নমুনা পরীক্ষায় নতুন করোনা রোগ সনাক্ত হয়েছে ২৭৯জন। এর মধ্যে  সিটি করপোরেশনের একজন কাউন্সিলর ও চার কারারক্ষীও রয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে চট্টগ্রাম মহানগরের ১৮০ জন ও উপজেলা পর্যায়ে ৯১ জন রয়েছেন।

নতুন আক্রান্তদের মধ্যে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের ৩৭ নম্বর উত্তর মধ্যম হালিশহর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোহাম্মদ শফিউল আলম রয়েছেন। এছাড়া চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে ২২, ২৩, ২৫ এবং ২৮ বছর বয়সী আরও চার কারারক্ষী করোনা পজিটিভ শনাক্ত হয়েছেন।

কাউন্সিলর শফিউল আলম  বলেন, ‘আমি ২০ মে থেকে অসুস্থ। ঈদের পর করোনা টেস্টের জন্য নমুনা দিয়েছিলাম। আজ সন্ধ্যায় (শনিবার) আমার করোনা টেস্ট রিপোর্ট পজিটিভ বলে ল্যাব থেকে আমাকে জানিয়েছে।’ দোয়া চেয়ে তিনি আরো বলেন, ‘পুলিশ প্রশাসন থেকে আমার বাড়ি লকডাউনের প্রস্তুতি চলছে। এলাকার কোন মানুষের মনে নিজের অজান্তে কোন কষ্ট দিয়ে থাকলে আমাকে ক্ষমা করে দিবেন। আমি যেন দ্রুত সুস্থ হয়ে আবার জনগণের মাঝে ফিরতে পারি সবাই সেই দোয়া করবেন।’

শনিবার চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) ল্যাবে ২৬০ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন করে ১২০ জনের করোনা পাওয়া গেছে। এর মধ্যে মহানগর এলাকার ১১১ জন আছেন। বাকি ৯ জন বিভিন্ন উপজেলার।

বিআইটিআইডিতে গত তিনদিনে ৮১৬টি পরীক্ষা করে ১১৬ জনের করোনা পজিটিভ পাওয়া গেছে; উক্ত ফলাফল আজ শনিবার রাতে প্রকাশ করা হয়েছে। নতুন শনাক্তদের মধ্যে ৬৭ জন নগরের ও ৪৩ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

সিভাসুতে ১৩৮ জনের নমুনা পরীক্ষা করে ৪২ জনের করোনা মিলেছে। এর মধ্যে ২ জন নগরের ও ৪০ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা

কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ৫ জনের পরীক্ষা করে একজনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

সিভিল সার্জন জানিয়েছেন, চট্টগ্রামের বিভিন্ন উপজেলায় নতুন শনাক্ত ৯১ জনের মধ্যে লোহাগাড়ার ৩ জন, সাতকানিয়ার ১ জন, বাঁশখালীর ৫ জন, আনোয়ারার ১ জন, চন্দনাইশের ১৩ জন, পটিয়ার ৬ জন, বোয়ালখালীর ৫ জন, রাঙ্গুনিয়ার ১ জন, রাউজানের ৫ জন, ফটিকছড়ির ২ জন, হাটহাজারীর ৩৪ জন, সীতাকুণ্ডের ১৪ জন ও মিরসরাইয়ের ১ জন আছেন।

সিভিল সার্জন থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুসারে জানা যায়, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে ২৬০টি নমুনার মধ্যে পজিটিভ হয়েছে ১২০ জনের। এই ১২০ জনের মধ্যে ১১১ জন মহানগরীর এবং ৯ জন বিভিন্ন উপজেলার। মহানগরীর ১১১ জন হলেন- বহদ্দারহাটের দুইজন, খুলশির তিন, মনসুরাবাদে এক, বহদ্দারহাট খাজারোডে এক, আগ্রাবাদে তিনজন, দামপাড়ায় পুলিশ লাইনে ১৭ জন, আসকার দিঘির পাড়ে একজন, নন্দনকাননে এক, কালামিয়া বাজারে এক, অক্সিজেন এলাকায় দুই, চকবাজারে দুই, সদরঘাটে দুই, পতেঙ্গা  নেভি গেইটে এক, হাজারি গলিতে দুই, বলুয়ার দীঘি এলাকায় এক, খলিফা পট্টিতে এক, আসাদগঞ্জে এক, দেওয়ানজি পুকুর পাড়ে এক, জেলখানায় চারজন, পতেঙ্গায় ছয় জন, জামালখানে একজন, মোমিন রোডে একজন, আজাদখান বাই লেইনে একজন, হিলভিউ আবাসিক এলাকায় তিনজন, বায়েজীদে তিনজন,   চমেকে ১০ জন, পাহাড়তলীতে একজন, চট্টেশ্বরীতে একজন, নাসিরাবাদে একজন, অলংকার মোড় এলাকায় একজন, চান্দগাঁওয়ে চারজন, পূর্ব মাদারবাড়িতে একজন, কোতোয়ালীতে পাঁচজন, জাকির হোসেন রোডে একজন, ডবলমুড়িংয়ে একজন, বাকলিয়ায় একজন, আমিরবাগ আবাসিক এলাকায় একজন, পতেঙ্গা ঈসাখান এলাকায় একজন, ঈসাখান হাইস্কুল কলোনী একজন, চট্টগ্রাম বন্দরে ১০ জন, হালিশহরে চারজন,নিউ মুরিংয়ে একজন, ও পোর্ট কলোনীতে একজন রয়েছেন। এছাড়া উপজেলার ১০ জন হলেন- হাটহাজারিতে দুইজন, লোহাগাড়ায় দুই জন, রাঙ্গুনিয়ায় একজন, বোয়ালখালীতে একজন, মিরসরাইয়ে একজন, সাতকানিয়ায় একজন, ফটিকছড়িতে একজন, চন্দনাইশে একজন রয়েছেন।

এদিকে নতুন করে ২৩৭ জন করোনা শনাক্ত হওয়ায় মোট রোগীর সংখ্যা হলো ২,৮২৫ জন।