বৃহস্পতিবার, ০৯ এপ্রিল ২০২০

গরিবের স্বপ্নে সর্বনাশা আগুন

প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম

প্রকাশিত: ২৫ জানুয়ারি ২০২০ শনিবার, ০৯:৪০ এএম

গরিবের স্বপ্নে সর্বনাশা আগুন

চট্টগ্রামের পাঁচলাইশ থানাধীন শুলকবহর এলাকার ভয়াবহ আগুনে পুড়ে গেছে মির্জাপোল বস্তি। আগুনের লেলিহান শিখায় পুড়ে গেছে আড়াইশ থেকে তিনশ কাঁচাপাকা ঘর। শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শুলকবহরের পুরাতন ওয়াপদা সংলগ্ন ডেন্টাল মেডিকেলের পাশে ডেকোরেশন গলির বাবু কলোনিতে এ আগুন লাগে।

আগ্রাবাদ ফায়ার সার্ভিসের উপ সহকারী পরিচালক ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী জানান, ফায়ার সার্ভিসের পাঁচ ইউনিট দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

কলোনির গলিগুলো সংকীর্ণ হওয়ায় গাড়ি পৌঁছাতে ও আগুন নিয়ন্ত্রণে বেগ পেতে হয়েছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, আগুন লাগার কারণ নিশ্চিতভাবে জানা যায়নি। বাবু কলোনির যে কোনো ঘর থেকে আগুন লেগে থাকতে পারে।

স্থানীয়রা জানায়, ওই কলোনিতে দুই থেকে আড়াইশ কাঁচা ঘর রয়েছে। মূলত নিম্ন আয়ের মানুষ এক কক্ষের এসব বাসায় ভাড়া থাকেন। চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের পাঁচলাইশ জোনের সহকারী কমিশনার দেবদূত মজুমদার বলেন, এ ঘটনায় কারও হতাহতেরও খবর পাওয়া যায়নি।
আগুনে সব হারিয়ে এখন নিঃস্ব বস্তির কয়েক হাজার মানুষ। পুড়ে গেছে শেষ সম্বল। নেই মাথা গোঁজার ঠাঁইটুকুও।

শুক্রবার (২৪ জানুয়ারি) সকালে হঠাৎ করেই নগরীর মির্জাপোল বস্তির পশ্চিম দিকের একটি ঘর থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। বস্তিবাসী কিছু বুঝে উঠার আগেই আগুন দ্রুত চারিদিকে ছড়িয়ে পড়ে। আগুন নেভাতে দেরি হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন বস্তিবাসী। তারা বলেন, অবহেলা, ঠিক সময়ে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি না আসা, পানি না দিতে পারার কারণে আগুনে সব পুড়ে গেছে। সরু গলি ও বস্তির আশে পাশে পানির কোন ব্যবস্থা না থাকায় আগুন নিভাতে দেরি হয়েছে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিস।

ফায়ার সার্ভিসের উপ সহকারী পরিচালক ফরিদ আহমদ চৌধুরী বলেন, কেউ আহত হয়েছে বা কেউ আটকা পড়েছে এ ধরনের কোন তথ্য আমরা পাইনি। ইতিমধ্যে আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে।