বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮

মুস্তাফিজকে ছেড়ে দিল মুম্বাই

ক্রীড়া প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২০ অক্টোবর ২০১৮ শনিবার, ১০:০৯ পিএম

মুস্তাফিজকে ছেড়ে দিল মুম্বাই

বাংলাদেশি বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমানকে ছেড়ে দিয়েছে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) দল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। মুস্তাফিজের সঙ্গে মুম্বাই শিবির থেকে বাদ পড়েছেন লঙ্কান স্পিনার আকিলা ধনঞ্জয়া।

মুস্তাফিজ ও ধনঞ্জয়াকে ছেড়ে দিলেও দক্ষিণ আফ্রিকার কুইন্টন ডি কককে দলে ভিড়িয়েছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু থেকে প্রোটিয়া উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান ডি কককে কিনে নিয়েছে মুম্বাই। আইপিএল ২০১৯ এর জন্য বিক্রি হওয়া প্রথম ক্রিকেটার ডি কক। ক্রীড়া বিষয়ক সংবাদ মাধ্যম ক্রিকইনফোর প্রতিবেদনে এমনটাই জানানো হয়েছে।

মুস্তাফিজ আইপিএলে প্রথম অংশ নেন ২০১৬ সালে। আইপিএলে নিজের প্রথম আসরেই সানরাইজার্স হায়দরাবাদের হয়ে ঝলক দেখান তিনি। দলকে শিরোপা জিতিয়ে নির্বাচিত হন টুর্নামেন্টের সেরা উদীয়মান ক্রিকেটার। পরের আসরে বাঁহাতি এই পেসারকে রেখে দিলেও আইপিএলের ১১তম আসরে তাকে ধরে রাখেনি হায়দরাবাদ।

পরের বার মুস্তাফিজকে দেখা যায় নিলামের টেবিলে। সেখান থেকে দুই কোটি ২০ লাখ রুপিতে মুস্তাফিজকে দলে ভেড়ায় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। আইপিএলের সর্বশেষ আসরে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের জার্সি গায়ে সব মিলিয়ে সাত ম্যাচে মাঠে নেমেছেন মুস্তাফিজুর রহমান। সাত ম্যাচে তিনি মোট ২৭.৩ ওভার বল করেন। ওভারপ্রতি ৮.৩৬ গড়ে ২৩০ রানের বিনিময়ে সাত উইকেট পান। অস্ত্রোপচারের পর আইপিএলে আবারো ফিরে ১১তম আসরে দলের প্রয়োজনে জ্বলে উঠতে পারেননি বাংলাদেশি এ কাটার মাস্টার।

আইপিএলের ১২তম আসরকে সামনে রেখে বাংলাদেশি এই কাটার মাস্টারকে ছেড়ে দিয়েছে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। ১২তম আসরকে সামনে রেখে খেলোয়াড় ধরে রাখা ও ছেড়ে দেওয়ার জন্য ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলোকে। এ সময় পুরানো খেলোয়াড় ধরে রাখার পাশাপাশি নতুন খেলোয়াড় কিনতেও পারবে। কেনার জন্য প্রতিটি দল তিন কোটি রুপি পর্যন্ত ব্যবহারের সুযোগ পাবে। উদ্বৃত্ত অর্থ ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো ব্যবহার করতে পারবে মূল নিলামে।

গতবার প্রত্যাশা অনুযায়ী কিছু দিতে না পারায় প্রথম দিনই মুস্তাফিজকে ছেড়ে দিয়েছে তিনবারের চ্যাম্পিয়ন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। তবে সম্প্রতি বল হাতে দারুণ ফর্মে থাকায় নিলামে মুস্তাফিজকে বড় ফ্র্যাঞ্জাইজিগুলো টানবে এমনটাই বিশ্বাস মুস্তাফিজ ভক্তদের।