শুক্রবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৮

জশনে জুলুসে ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) কতটুকু শরিয়ত সম্মত?

সারাবেলা ডেস্ক

প্রকাশিত: ১৬ নভেম্বর ২০১৮ শুক্রবার, ১০:০০ পিএম

জশনে জুলুসে ঈদে মিলাদুন্নবী (দ.) কতটুকু শরিয়ত সম্মত?

জুলুস আরবি শব্দ। আভিধানিক অর্থ শোভা যাত্রা বা বর্ণাঢ্য মিছিল, শাহী সওয়ারী ইত্যাদি। শরিয়তের পরিভাষায় সমগ্র সৃষ্টির প্রাণ ও উৎস হুজুর নবী করিম সাল্লাল্লাহু তা’আলা আলায়হি ওয়াসাল্লাম-এর এ ধরাধামে শুভাগমনকে কেন্দ্র করে শুকরিয়া আদায়ের উদ্দেশ্যে হামদ-না’ত, দুরূদ-সালাম, যিকির-আযকার ইত্যাদির মাধ্যমে শোভা যাত্রা ও খুশি উদযাপন করাকে জশনে জুলুসে ঈদে মিলাদুন্নবী সাল্লাল্লাহু তা’আলা আলায়হি ওয়াসাল্লাম বলা হয়।

নবী করিম সাল্লাল্লাহু তা’আলা আলায়হি ওয়াসাল্লাম-এর শুভাগমনে খুশি উদ্যাপন করা, হামদ-না’ত, দুরূদ-সালাম ও যিকির আযকারের মাধ্যমে জুলুস করতঃ উক্ত মহান নিয়ামতের শুকরিয়া আদায় করা এবং তার প্রতি ভক্তি, শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা প্রদর্শন করা শরিয়ত সম্মত এবং তা ক্বোরআন করিমের আল্লাহর করুনা ও খাস রহমতকে স্মরণ করে খুশি উদযাপন করার নির্দেশের অনুসরণ মাত্র। আর মহান আল্লাহর নির্দেশে নূরানী ফেরেশতা কর্তৃক পালনকৃত একটি সুন্নাতের অনুকরণ মাত্র।
 যেমন ক্বোরআন করিমের সূরা ইউনুসে মহান আল্লাহ্ এরশাদ করেন- قل بفضل الله وبرحمته فبذالك فليفرحوا هو خير مما يجمعون- অর্থাৎ হে হাবীব! আপনি (বিশ্ববাসীকে) বলুন, আল্লাহর অনুগ্রহ ও তারই দয়া (তথা প্রিয় মাহবুব (দ.)কে স্মরণ করে সেটার উপর তারা যেন আনন্দ প্রকাশ করে। এটা তাদের জমাকৃত সমস্ত ধন-সম্পদ ও নেক আমল সমূহ অপেক্ষা অধিক উত্তম।

উক্ত আয়াতের ব্যাখ্যায় আল্লামা ইমাম জালাল উদ্দীন সুয়ূতী রহমাতুল্লাহি আলায়হি স্বীয় তফসীরে ‘‘আদ্ দুররুল মনসুরে’’ উল্লেখ করেছেন যে, রয়িসুল মুফাসসেরীন হযরত আবদুল্লাহ্ ইবনে আব্বাস রাদ্বিয়াল্লাহু আনহুমা برحمته এর তফসীরে আল্লাহর প্রিয় মাহবুব সাল্লাল্লাহু তা’আলা আলায়হি ওয়াসাল্লামার পবিত্র ও নূরানী জাতে পাক বলে বর্ণনা করেছেন।

উল্লিখিত ব্যাখ্যা দ্বারা বুঝা গেল মহান আল্লাহর প্রিয় মাহবুব আক্বা ও মওলা হুজুর পুরনূর সাল্লাল্লাহু তা’আলা আলায়হি ওয়াসাল্লাম হলেন আল্লাহর অদ্বিতীয় শ্রেষ্ঠ করুণা ও নেয়ামত। অতএব উল্লিখিত আয়াতের আলোকে মহানবী সাল্লাল্লাহু তা’আলা আলায়হি ওয়াসাল্লাম-এর শুভাগমনকে উপলক্ষ করে তাঁরই শুভাগমনের মাসে শরিয়তসম্মত তরিকায় হামদ-না’ত, দুরূদ-সালাম, যিকির-আকার ও দোয়ার মাধ্যমে আনন্দ উৎসব করা এবং শান শওকত পূর্ণ জুলুস বের করা মহান আল্লাহর নির্দেশের বাস্তবায়ন যা মুস্তাহাব ও নবীপ্রেমের বহিঃপ্রকাশ। যার বর্ণনা মাওয়াহেবে লাদুনিয়্যা কৃত ইমাম কসতলানী রহমাতুল্লাহি আলায়হি, ও খাসায়েছুল কুবরা কৃত ইমাম সূয়ূতী রহমাতুল্লাহি আলায়হি সহ অনেক নির্ভরযোগ্য কিাতবে বর্ণিত আছে।