মঙ্গলবার, ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯

ভূমিমন্ত্রীর সিদ্ধান্তে সবাই খুশি !

প্রতিনিধি, আনোয়ারা (চট্টগ্রাম)

প্রকাশিত: ০১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ শুক্রবার, ০৬:০৫ পিএম

ভূমিমন্ত্রীর সিদ্ধান্তে সবাই খুশি !

আনোয়ারায় উপজেলা নির্বাচনে প্রার্থীতা নিয়ে জল্পনা-কল্পনা চলছিল কয়েক দিন ধরেই। স্থানীয় সংসদ সদস্য ও ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামা্ন চৌধুরীর দিকে তাকিয়ে ছিলেন নেতাকর্মীরা। ভূমিমন্ত্রী  দেশের বাইরে থাকায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব হযনি।

দেশে ফেরার পর মনোনয়ন প্রত্যাশী সবার মধ্যে সমন্বয়ের জন্য মন্ত্রী সবার সাথে কথা বলেন। রোববার থেকে এ নিয়ে ভূমিমন্ত্রীর উপস্থিতিতে রাজধানী ঢাকায় কয়েক দফা বৈঠক চলে। শেষ পর্যন্ত মন্ত্রীর সিদ্ধান্তের উপর শতভাগ আস্থা রেখেছেন সবাই।  বৃহস্পতিবার দুপুরে মন্ত্রী সবার অভিযোগ, অনুযোগ, মতামত শুনে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানান। ত্যাগী নেতাদের মধ্যে যারা সেভাবে মূল্যায়ন পাননি ভবিষ্যতে বিভিন্ন পদে তাদের পদায়নের বিষয়ে আশ্বস্থ করেন। সবশেষে মন্ত্রী বর্তমান চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান মৃনাল চৌধুরী, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মরিয়ম বেগমের প্রতি প্রাথমিক সমর্থনের কথা জানান।

মন্ত্রীর এই সমর্থনের খবর চাউর হওয়ার পর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা শুভেচ্ছায় ভাসছেন উপজেলা চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক চৌধুরী।

গত কয়েকদিন ধরে তৌহিদ ছাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান পদে আরো ৬জন মনোনয়ন প্রত্যাশী নিয়ে আলোচনা চলছিল। তারা হলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও বটতলী ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যাপক আবদুল মান্নান চৌধুরী, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক এম এ হান্নান চৌধুরী মঞ্জু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি বাহাউদ্দিন খালেক শাহ্জী, উপজেলা আওয়ামী লীগের এডহক কমিটির সদস্য ও জেলা পরিষদ সদস্য এস এম আলমগীর চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগ এডহক কমিটির সদস্য ও পরৈকোড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মামুনুর রশিদ চৌধুরী আশরাফ এবং উপজেলা আওয়ামী লীগ এডহক কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট সালাউদ্দিন আহমদ চৌধুরী লিপু। মন্ত্রী একে একে সবার বক্তব্য শুনে তার সমর্থনের কথা জানান বলে বৈঠকে উপস্থিত একটি সূত্র জানায়।

দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান বলেন,  ৩১ জানুয়ারির মধ্যে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের চেয়ারম্যান প্রার্থীদের তালিকা কেন্দ্রে পাঠাতে চিঠি দেয়া হয়েছিল। তবে আমরা ১ ফেব্রুয়ারির মধ্যে তালিকা পাঠিয়ে দেব।

আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতারা জনান, প্রত্যেক উপজেলা থেকে ৩ জন চেয়ারম্যান ও ৩ জন করে ভাইস চেয়ারম্যানের নাম (পুরুষ ৩ জন ও মহিলা ৩ জন) আজ ৩১ জানুয়ারির মধ্যে কেন্দ্রে পাঠানোর জন্য কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ গত ২২ জানুয়ারি চট্টগ্রাম উত্তর ও দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক এবং ১৪ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের কাছে চিঠি পাঠিয়েছিল।

গতবার নির্দলীয় ভোট হলেও এবার দলীয় প্রতীকে উপজেলা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তবে আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এর মধ্যে জানিয়েছেন ভাইস চেয়ারম্যান ও সংরক্ষিত মহলা ভাইন চেয়ারম্যান পদে প্রার্থীতা উম্মুক্ত থাকবে।

আনোয়ারা উপজেলা আওয়ামীলীগ সূত্র জানায়, মন্ত্রীর উপস্থিতি বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রার্থীতা নির্ধারণী সর্বশেষ বৈঠকে ছিলেন বর্তমান চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান মৃণাল কান্তি ধর, চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী এসএম আলমগীর চৌধুরী,বাহাউদ্দিন খালেক শাহজী, ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী সুগ্রীব মজুমদার দোলন, উপজেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অনুপম চক্রবর্তী বাবুসহ আরো কয়েকজন নেতা।

এর আগের কয়েকটি বৈঠকে ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও চেয়ারম্যান প্রার্থী অধ্যাপক আবদুল মান্নান চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ মালেক,  বর্তমান মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মরিয়ম বেগম ও ইউপি চেয়ারম্যান এমএ কাইয়ুম শাহ ।

বর্তমান চেয়ারম্যান তৌহিদুল হক চৌধুরী বলেন, মাননীয় ভূমিমন্ত্রী বর্তমান তিনজন অর্থাৎ চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যানের উপর তার আস্থার কথা জানিয়েছেন। তিনি আমার উপর পুনরায় আস্থা রেখেছেন এজন্য কৃতজ্ঞ।

আরেক চেয়ারম্যান প্রার্থী এসএম আলমগীর চৌধুরী বলেন, প্রার্থীতা চূড়ান্ত করতে চারদিন ধরে ভূমিমন্ত্রীর উপস্থিতিতে কয়েকটি বৈঠক হয়। শেষ পর্যন্ত চেয়ারম্যান পদে ৪ জন প্রার্থী নিয়ে আলোচনা হয়েছে। মন্ত্রী সবার কথা শুনেছেন। সবাইকে মূল্যায়নের আশ্বাস দিয়েছেন। মন্ত্রীর কথা শুনে কারো কোন হতাশা নেই। সবাই খুশি। তিনি বর্তমানদের উপর আস্থা রেখেছেন।