ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮

মিরসরাইয়ে ‘জঙ্গি আস্তানায়’ দুই লাশ

প্রতিনিধি, মিরসরাই

প্রকাশিত: ০৫ অক্টোবর ২০১৮ শুক্রবার, ১১:০২ এএম

মিরসরাইয়ে ‘জঙ্গি আস্তানায়’ দুই লাশ

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে সন্দেহভাজন জঙ্গিদের একটি আস্তানা ঘিরে অভিযানে ব্যাপক গোলাগুলি ও বিস্ফোরণের পর ভেতর থেকে দুইজনের ছিন্নভিন্ন লাশ উদ্ধারের কথা জানিয়েছে র‌্যাব।

র‌্যাবের গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার মুফতি মাহমুদ খান বলেছেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশে ওই বাড়িতে অবস্থান নিয়ে নব্য জেএমবির জঙ্গিরা ‘চট্টগ্রাম আদালত ভবনে’ নাশকতার প্রস্তুতি নিচ্ছে খবর পেয়ে তারা এ অভিযান চালান।

বৃহস্পতিবার গভীর রাত থেকে প্রায় আট ঘণ্টার অভিযান শেষে জোরারগঞ্জ থানার উত্তর সোনাপাহাড় গ্রামে একতলা ওই টিনশেড বাড়ি থেকে একটি একে-২২ রাইফেল, পাঁচটি অবিস্ফোরিত আইইডি, তিনটি পিস্তল, গোলাবারুদ এবং বোমা তৈরির সরঞ্জাম উদ্ধার করে র‌্যাব।

‘চৌধুরী ম্যানশন’ নামে ওই বাড়ির মালিক ও কেয়ারটেকারকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে বলেও মুফতি মাহমুদ খান জানিয়েছেন।

মিরসরাই উপজেলার জোরারগঞ্জ ইউনিয়নের উত্তর সোনাপাহাড় এলাকার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের পাশের ‘চৌধুরী ম্যানসন’ নামে ওই বাড়িতে শুক্রবার ভোররাতে অভিযান শুরু করে র‌্যাব-৭। র‌্যাবের চট্টগ্রামের সহকারী পরিচালক (গণমাধ্যম) মিনতানুর রহমান এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

অভিযান শুরুর এক ঘণ্টা পর চারটার দিকে র‌্যাব সদস্যরা চারদিক ঘেরাও করে বাড়ির কাছাকাছি পৌঁছালে বাড়ির ভেতর থেকে বেশ কয়েক রাউন্ড গুলি ছোড়া হয়।

এর কিছুক্ষণ পরে বাড়ির ভেতরে বিকট শব্দে তিন-চারটি বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়। এতে বাড়িটির ছাদের বড় একটি অংশ উড়ে গেছে। র‌্যাব সদস্যরা বাড়িটি ঘিরে রেখেছেন।

এ সময় মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বাড়িটিতে ৩/৪ জন থাকতে পারে বলে ধারণা র‌্যাবের। ঘটনাস্থলে কাজ শুরু করেছে বম্ব ডিসপোজাল ইউনিট।

ভোর পৌনে ৪টা নাগাদ র্যা বের তরফ থেকে ভেতরে থাকা জঙ্গি সদস্যদের আত্মসমর্পন করতে বলা হয়। এসময় ঘরে থাকা জঙ্গি সদস্যরা দুটি শক্তিশালী বোমা বিস্ফোরণ ঘটনায়। এর পর ঘরের ভেতর আর কোনো সাড়া শব্দ মেলেনি।

এরপর কিছুক্ষণ সেখানে অভিযান বন্ধ রাখে র‌্যাব। শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঢাকা থেকে বোমা নিষ্ক্রিয়করণ দলের সদস্যরা গিয়ে বাড়িটির ভেতরে প্রবেশ করে। বাড়িটি থেকে কয়েকটি বোমাও উদ্ধার করেছেন তারা।

স্থানীয় লোকজন জানায়, ভোর পৌনে চারটার দিকে দুটি বোমা ফাটে। এ সময় বোমার বিকট শব্দে পুরো গ্রাম কেপে ওঠে। চৌধুরী ম্যানশনের টিনের চাল উড়ে যায়।

স্থানীয় ইউপি সদস্য মনিরুল হক জানান, চৌধুরী ম্যানশন নামের ওই বাড়ির মালিক মাজহারুল হক নামের এক ব্যক্তি। তিনি উপজেলার ইছাখালী ইউনিয়ন এলাকারে বাসিন্দা। বছর খানেক আগে জমি কিনে সোনাপাহাড় এলাকার বাড়িটি তৈরি করে ভাড়া দিয়ে দেয়।

র‌্যাব-৭ এর ফেনী ক্যাম্প অধিনায়ক শাফায়াত জামিল ফাহিম জানান, চৌধুরী ম্যানশন নামের বাড়িটি ঘিরে রাখা হয়েছে। বোমা ডিসপোজাল ইউনিটের সদস্যরা ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছালে ঘরের ভেতরে অভিযান পরিচালিত হবে।