ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ আগস্ট ২০১৮

পটিয়ায় সীমানা বিরোধে প্রবাসীর স্ত্রীর মৃত্যু !

পটিয়া প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২০ জানুয়ারি ২০১৮ শনিবার, ০৬:০২ পিএম

পটিয়ায় সীমানা বিরোধে প্রবাসীর স্ত্রীর মৃত্যু !

পটিয়ায় সীমানা প্রাচীর নিয়ে বিরোধের জের প্রতিপক্ষের হামলায় প্রবাসীর স্ত্রীর মৃত্যুর অভিযোগে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক ২ ঘন্টা অবরোধ করেছে নিহতের স্বজনরা। নিহত গৃহবধুর নাম জয়নাব বেগম(৪৫)। তিনি পটিয়া উপজেলার মনসা মেহেরআটি গ্রামের নুরুল আবছারের স্ত্রী। শনিবার সকাল ৮টার দিকে গৃহবধুর মৃত্যু হলে দুপুর ১২ টা থেকে প্রায় ২টা পর্যন্ত চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এলাকায় অবরোধ করে রাখে নিহতের স্বজনরা।

দীর্ঘদিন ধরে পটিয়া পৌরসদরের ৩নং ওয়ার্ড মক্কা ভিলার পাশে নিজস্ব জায়গায় পাকা বাড়ি নির্মাণ করে বসবাস করছেন প্রবাসী নুরূল আবছারের পরিবার। প্রবাসীর বাড়ির জায়গায় পাশ্ববর্তী গাজী কনভেনশন সেন্টার কর্তৃপক্ষ জোরপূর্বক সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করতে গেলে সেখানে বাধা দিতে গেলে প্রবাসীর স্ত্রীকে পাথর নিক্ষেপ এবং এক পর্যায়ে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয় বলে নিহতের স্বজনদের অভিযোগ।

এদিকে প্রবাসীর স্ত্রীর নিহতের খবর চারিদিকে ছড়িয়ে পড়লে তার স্বজনরা দুপুর ১২টা থেকে দুটা পর্যন্ত চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কের পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এলাকায় অবস্থান নিয়ে অবরোধ করে। এসময় ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবী জানিয়ে টায়ায়ে আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করে তার স্বজনরা। এসময় যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেলে মহাসড়কের দু পাশে প্রায় ৮ কিলোমিটার সড়ক যানজট সৃষ্টি হয়। পরে দুপুর ২টায় চট্টগ্রাম জেলা দক্ষিণের পুলিশ সুপার এমরান হোসেন ভুইয়া ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে পুলিশে কাছে ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেপ্তার করার এমন আশ্বাস পেয়ে অবরোধ তোলে নেয়।

প্রবাসীর স্ত্রীর স্বজনরা জানান, দীর্ঘদিন ধরে গাজী কনভেনশন সেন্টারের পরিচালক গাজী গিয়াসের সাথে প্রবাসী নুরুল আবছারের বিরোধ রয়েছে। সীমানা প্রাচীর নিয়ে বিরোধটি সৃষ্টি হলে নুরুল আবছার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে একটি অভিযোগ দায়ের করে। সে অভিযোগের ভিত্তিতে সহকারী কমিশনার (ভুমি) অফিস থেকে জায়গা পরিমাপ করা হয়। জায়গা পরিমাপ করে দেখা যায়, গাজী কনভেনশন সেন্টারের সীমানা প্রাচীরের ভেতরে প্রবাসী নুরুল আবছারের দুই ফুট জায়গা রয়ে গেছে। এ জায়গা গুলো বুঝিয়ে না দেয়ায় বিরোধ আরো দীর্ঘ হয়।

শনিবার সকালে সীমানা প্রাচীরে কাজ করতে গেলে প্রবাসী নুরুল আবছারের স্ত্রী জয়নাব বেগম বাধা দেয়। এক পর্যায়ে প্রবাসীর স্ত্রীকে পাথর নিক্ষেপ ও ধাক্কা দেয় বলে প্রবাসীর স্বজনরা অভিযোগ করেন। এ সময় তিনি মাটিতে লুটিয়ে পড়লে তাকে দ্রুত পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে প্রবাসীর স্ত্রীকে মৃত ঘোষণা করে দায়িত্বরত চিকিৎসকরা।

পটিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা শফিউল আজম জানান, প্রবাসী স্ত্রীর বুকে আঘাতে মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ময়না তদন্তে বিস্তারিত জানা যাবে।
এব্যাপারে চট্টগ্রাম জেলা দক্ষিণের পুলিশ সুপার এমরান হোসেন ভুইয়া বলেন, প্রবাসী নুরুল আবছারের সাথে গাজী কনভেনশন সেন্টারের মালিকের সাথে সীমানা প্রাচীর নিয়ে দীর্ঘদিন বিরোধ চলে আসছিল।

এ বিরোধের জের শনিবার সকালে গাজী কনভেনশন সেন্টারের লোকজন সীমানা প্রাচীরে কাজ করতে গেলে গৃহবধুর মৃত্যুর ঘটনাটি ঘটে। তবে কিভাবে মৃত্যু হয়েছে তা এখনো বলা যাচ্ছে না। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়না তদন্তের প্রতিবেদন হাতে ফেলে বলা যাবে। তবে নিহতের পরিবার থেকে কেউ যদি অভিযোগ দায়েল করে তাহলে মামলা নেয়া হবে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।