ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮

পটিয়ায় আওয়ামীলীগের আনন্দ মিছিল, মাঠে নেই বিএনপি

রবিউল হোসেন, পটিয়া

প্রকাশিত: ০৫ জানুয়ারি ২০১৮ শুক্রবার, ০৭:৫২ পিএম

পটিয়ায় আওয়ামীলীগের আনন্দ  মিছিল, মাঠে নেই বিএনপি

৫ জানুয়ারি নিয়ে নানা উৎকন্ঠা থাকলেও পটিয়ায় গণতন্ত্র রক্ষা দিবস উপলক্ষে শুক্রবার বিকেল ৪টায় আনন্দ মিছিল করেছে আওয়ামীলীগ। পটিয়া আসনের সংসদ সদস্য সামশুল হক চৌধুরীর নেতৃত্বে পটিয়া পৌরসভা চত্ত্বর থেকে মিছিলটি শুরু হয়ে উপজেলা পরিষদ মাঠে গিয়ে শেষ হয়। আনন্দ মিছিলে পটিয়া উপজেলা ও পৌরসভা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, শ্রমিকলীগসহ নানা অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা সাথে ছিল। অন্যদিকে আওয়ামীলীগের বিপরীত চিত্র বিএনপিতে। শুক্রবার কোন কর্মসূচী পালন করেনি বিএনপি। তবে বিএনপির সূত্র জানিয়েছে, প্রশাসনের কড়াকড়ির কারনে তারা কর্মসূচী থেকে সরে এসেছে।

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে টানা দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসায় বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ এ দিনকে গণতন্ত্র রক্ষা দিবস হিসেবে পালন করে আসছে গেল কয়েকটি বছর। অন্যদিকে ৫ জানুয়ারির ওই নির্বাচনে ভোট বর্জন করায় এ দিনকে গণতন্ত্র হত্যা দিবস হিসেবে পালন করে আসছে বিএনপি।

২০১৮ সালের ডিসেম্বরে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে আওয়ামীলীগ ও বিএনপিতে চলছে নানা হিসেব নিকেশ। আওয়ামীলীগ ইতিমধ্যে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে নির্বাচন মুখি প্রচারণা এবং দলীয় উন্নয়ন কর্মকান্ড মানুষের কাছে তুলে ধরার কার্যক্রম হাতে নিয়েছে। ৫ জানুয়ারি শুক্রবার বিকেল ৪টায় পটিয়া পৌর চত্ত্বর থেকে গণতন্ত্র রক্ষা দিবস উপলক্ষ্যে আনন্দ মিছিল শুরু হয়ে পটিয়া উপজেলা পরিষদ মাঠে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পটিয়া আসনের সংসদ সদস্য সামশুল হক চৌধুরী।

বক্তব্য রাখেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী। পটিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আকম সামশুজ্জামানের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক পৌরমেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদের সঞ্চালনায় এতে জেলা,্ উপজেলা ও পৌরসভা আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা বক্তব্য রাখেন।
অন্যদিকে দলীয় অন্ত:কোন্দলের কারণে বিগত কয়েক বছর ঘুছাতে পারেনি বিএনপি।

ইতিমধ্যে পটিয়ায় বিএনপির তিনটি গ্র“পে সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে। দলীয় কোন্দলের কারনে ৫ জানুয়ারি শুক্রবার বিএনপির কোন গ্র“পই মিছিল কিংবা সমাবেশ করতে পারেনি পটিয়ায়। তবে সাংগঠনিক কোন্দলের কারনে ৫ জানুয়ারির কর্মসূচী করতে না পারার বিষয়টি মানতে নারাজ পটিয়া উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম।

তিনি জানান, পুলিশ প্রশাসনের কড়াকড়ির কারনে তারা ৫ জানুয়ারির গণতন্ত্র হত্যা দিবসের কর্মসূচী থেকে সরে এসেছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে বারবার বলা হয়েছে যাতে কোন কর্মসূচী রাখা না হয়। মূলত প্রশাসনের অনুমতি না পাওয়ায় কর্মসূচী করতে পারেনি বলে তিনি জানান।

পটিয়া থানার ওসি (তদন্ত) রেজাউল করিম মজুমদার জানান, ৫ জানুয়ারি শুক্রবার পটিয়ায় বিএনপির কোন কর্মসূচি ছিল না। কোন ধরনের অনুমতি চাওয়া হয়নি। প্রশাসনের কড়াকড়ির কারনে কর্মসূচী থেকে সরে এসেছে বিএনপির এমন অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এব্যাপারে তিনি কিছুই জানেন না।