ঢাকা, শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৭

সমালোচনার মুখে অভিনেত্রী জয়া

সারাবেলা ডেস্ক

প্রকাশিত: ০১ অক্টোবর ২০১৭ রবিবার, ০৮:৪৪ এএম

সমালোচনার মুখে অভিনেত্রী জয়া

শারদীয় দুর্গোৎসব উদযাপন করে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছেন দুই বাংলার জনপ্রিয় অভিনেত্রী জয়া আহসান। শুক্রবার নবমী’র দিন জয়া ও তার মা রেহানা মাসউদ তাদের ইস্কাটনের বাড়ির পূজা মণ্ডপে যান। সেখানে পূজা উদযাপনের ছবি শেয়ার করে সকলকে নবমীর শুভেচ্ছা জানিয়ে ক্যাপশনে লিখেছিলেন, ‘আমাদের বাড়ির দুগ্গা পুজোতে আমি আর মা ..’। তবে ছবি ও ক্যাপশন আপলোডের পর থেকেই অনেকেই ফেসবুকে তার সমালোচনা করছেন।

শুক্রবার ছবি আপলোডের পরই একজন কমেন্ট বক্সে লিখেন, আজ নিশ্চিত হলাম জয়া হিন্দু ধর্ম গ্রহণ করেছেন। আরেকজন লিখেন, জয়া তোমাকে তো মুসলমান হিসেবে জানতাম।

গুলশান-বনানী সার্বজনীন পূজা ফাউন্ডেশনের ১০ বছর পূর্তি উৎসবে যোগদানের কিছু ছবিও আপলোড করেন জয়া। তবে এরপর আবারও সমালোচকদের প্রশ্ন, জয়া আপু কি মুসলমান?

সর্বশেষ আজ বিকেলে বিসর্জনের ছবি আপলোড করেন তিনি। সেখানেও জয়ার ধর্ম পরিচয় নিয়ে প্রশ্ন করতে থেমে যাননি সমালোচকরা। তবে এত সমালোচনার মধ্যেও অনেকেই জয়ার সৌন্দর্যের প্রশংসা করেছেন, সমালোচকদের সমালোচনার জবাবও দেয়ার চেষ্টা করেছেন অনেকে।

এক ফেসবুক ব্যবহারকারী এসব সমালোচনার জবাব দিয়েছেন জয়া’র কমেন্ট বক্সে। তিনি লিখেছেন, বাড়ির পূজা মানে তিনি যেই বাসায় বা ফ্ল্যাটে থাকেন সেই বাসায় কিছু হিন্দু ধর্মাবলম্বীও থাকে সেখানকার আশে পাশে কিছু হিন্দু মিলে পূজাটা করছে। যেখানে ভিন্নধর্মীদের ও সহযোগিতা রয়েছে। পূজা মণ্ডপটা হয়ত জয়া আহসানের বাসার নিচে হয়েছে তাই তিনি আমাদের বাড়ির পূজা লিখেছেন। এতে এতো ঘাবড়ানোর কিছু নাই। তিনি ধর্মান্তরিত হননি। পূজা মণ্ডপে উৎসব উপভোগ করতে গেছেন মাত্র।

তবে সমালোচকদের সমালোচনা নিয়ে ভাবতে নারাজ জয়া আহসান। তিনি সময় নিউজকে বলেন, আমি আমার কাজ নিয়ে আছি। আগে যেভাবে কাজ করেছি এখনও সেভাবেই কাজ করে যাচ্ছি।  এসব সমালোচনাকে আমি কানে নিতে চাই না।