ঢাকা, সোমবার, ১১ ডিসেম্বর ২০১৭

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে পটিয়ায় যুবলীগের শোডাউনের প্রস্তুতি

পটিয়া প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১১ নভেম্বর ২০১৭ শনিবার, ০৭:৫৬ এএম

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে  পটিয়ায় যুবলীগের শোডাউনের প্রস্তুতি

৪৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে পটিয়ায় বড় ধরনের শোডাউনের প্রস্তুতি নিয়েছে যুবলীগ । গত সপ্তাহ জুড়ে পটিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের বিরোধ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক সরব ছিল নেতাকর্মীরা। তবে যুবলীগে গ্র“পিং কোন্দল না থাকায় পটিয়া উপজেলা ও পৌরসভা যুবলীগের যৌথ উদ্যোগে শনিবার (১১ নভেম্বর) বিকেল ৩টায় আলোচনা সভা ও প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর র‌্যালীর মাধ্যমে এ শোডাউন করা হবে বলে জানা গেছে। উপজেলা ও পৌরসভা ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড কমিটির নেতৃবৃন্দের সরব উপস্থিতি থাকার জন্য নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। এ উপলক্ষ্যে বিগত কয়েকদিন ধরে ব্যাপাক প্রচার ও প্রচারণা করতে দেখা গেছে নেতাকর্মীদের।

দলীয় সূত্রে জানা যায়, বিগত ২০১৬ সালের ৬ নভেম্বর পটিয়া উপজেলা ও পৌরসভা যুবলীগের কমিটি ঘোষণা করে দক্ষিণ জেলা যুবলীগ। কমিটিতে পটিয়া উপজেলা যুবলীগের বেলাল উদ্দীনকে সভাপতি ও এমএ রহিমকে সাধারণ সম্পাদক এবং পটিয়া পৌরসভা যুবলীগে নুরে আলম সিদ্দিকীকে সভাপতি ও রফিকুল আলমকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। এর পর থেকে যুবলীগের সাংগঠনিক কার্যক্রমে গতিশীলতা বাড়ে। এর আগে দীর্ঘদিন ধরে পটিয়ায় যুবলীগে স্থবিরতা বিরাজ করছিল। কমিটি ঘোষনার কয়েক মাসের মধ্যেই উপজেলা ও পৌরসভা যুবলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিও গঠন করা হয়। এর আগে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠিত হয়েছে খুব কমই। যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী এবং কমিটির বর্ষপূর্তি উপলক্ষ্যে পটিয়ায় যুবলীগের শোডাউনের প্রস্তুতি বলেও দলীয় সূত্রে জানায়। শনিবার বিকেল ৩টায় উপজেলা পরিষদ মাঠে যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর সমাবেশ শুরু হবে।

এ ব্যাপারে পটিয়া পৌরসভা যুবলীগের সভাপতি নুরে আলম সিদ্দিকী জানান, ৪৫ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে পটিয়ায় যুবলীগের আলোচনা সভা ও র‌্যালী করা হবে। এছাড়াও নবগঠিত কমিটির বর্ষপূতি উপলক্ষ্যে বিশাল যুব সমাবেশও অনুষ্ঠিত হবে। এজন্য ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে।
এব্যাপারে পটিয়া উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ রহিম জানান, ১১ নভেম্বর শনিবার পটিয়ায় যুবলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে সমাবেশের মাধ্যমে যুবজাগরন সৃষ্টি করা হবে।

ইতিমধ্যে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সমাবেশ সফল করতে নেতাকর্মীদের নির্দেশনা প্রদান করার পাশাপাশি উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডে ব্যানার ফেস্টুনের মাধ্যমে প্রচারনা শেষ করা হয়েছে। শনিবার বিকেল ৩টা থেকে এ সমাবেশ শুরু হবে। পরে এক র‌্যালী গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করা হবে।